আজ রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
আজ রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

গোপালগঞ্জে স্ত্রী-সন্তানের গায়ে আগুন, ৬ দিন পর স্ত্রীর মৃত্যু

গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলার গোহালা ইউনিয়নের মুনিরকান্দি গ্রামে ঘুমন্ত স্ত্রী ও সন্তানের গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়েছিলেন স্বামী ওসমান শেখ। এ ঘটনার ছয়দিন পরে দগ্ধ হেলেনা আক্তারের (৩৬) মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (১০ জুন) সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় দগ্ধ ছেলে অন্তরের (১১) অবস্থা আশঙ্কাজনক। সেও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি।
এরআগে, গত ০৪ জুন (মঙ্গলবার) রাত ১টার দিকে তাদের গায়ে আগুন দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন হেলেনার ভাই ইমরান হোসেন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। শরীরের ৫০ শতাংশ পুড়ে যাওয়ায় চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে পাঠান।

জানা গেছে, স্বামী ওসমান শেখ তার শ্বশুরবাড়ি মুনিরকান্দি গ্রামে অবস্থানরত ঘুমন্ত স্ত্রী হেলেনা ও তাদের সন্তান অন্তরের গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন। ওসমান মাদকাসক্ত থাকায় পারিবারিক ও দাম্পত্য কলহে হেলেনা বেগম সন্তান অন্তরকে নিয়ে বাবার বাড়িতে থাকতেন। এই বিরোধে ওসমান গভীর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় তাদের গায়ে আগুন লাগিয়ে স্ত্রী ও সন্তানকে হত্যার চেষ্টা করেন বলে জানিয়েছে পরিবার ও এলাকাবাসী।

মুকসুদপুর থানার ওসি মোহাম্মদ আশরাফুল আলম জানান, স্বামীর দেওয়া আগুনে দগ্ধ হেলেনা আক্তার ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। যথাযথ আইনি প্রক্রিয়ায় মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এই ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। আগুন দেওয়ার পর থেকেই অভিযুক্ত আসামি ওসমান শেখকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদটি লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার করুন