আজ রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
আজ রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

কোটা বাতিলের পরিপত্র পুনর্বহালের দাবিতে শাহবাগ অবরোধ

সরকারি চাকরিতে কোটা ব্যবস্থা বাতিল করে ২০১৮ সালের সরকারের জারি করা পরিপত্র পুনর্বহাল রাখার দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ অবরোধ করেছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে শিক্ষার্থীরা পদযাত্রা নিয়ে এসে শাহবাগ মোড় অবরোধ করেন।

এর আগে, দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে থেকে পদযাত্রা শুরু করেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। পদযাত্রাটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি থেকে মাস্টার দা সূর্যসেন হল, হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল, নীলক্ষেত, ঢাকা কলেজ, সাইন্সল্যাবরেটরি মোড়, এলিফ্যান্ট রোড হয়ে শাহবাগে এসে থামে।
আন্দোলনরত ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষার্থী ইমরান হোসেন বলেন, কোটার মাধ্যমে বৈষম্য এবারই প্রথম নয়। ১৯৮৭ সালে বলা হয়েছিল, কোটা ধীরে ধীরে উঠে যাবে। কিন্তু ১৯৯৭ সালে কোটায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের স্থানে নাতি-নাতনিকেও যুক্ত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, কোটার মাধ্যমে বিভিন্ন সময় বৈষম্য আমরা দেখেছি। এমনও হয়েছে, বিসিএস পরীক্ষায় ২০০তম হয়েও কেউ ক্যাডার পাননি। অথচ ৫ হাজারতম হয়ে কোটায় অ্যাডমিন ক্যাডার হয়ে গেছেন। কোটাধারী না থাকলে আসনগুলো শূন্য থেকেছে তবুও সাধারণ শিক্ষার্থীরা পাননি। এ ধরনের বৈষম্য বাদ দিয়ে ২০১৮ সালের পরিপত্রটি পুনর্বহাল করতে হবে।

হিসাববিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মুরাদ মন্ডল বলেন, যারা বৈষম্যের বিরুদ্ধে লড়াই করে এদেশ স্বাধীন করল, সেই স্বাধীন দেশে তাদের সন্তানদের কাছে বৈষম্যের শিকার আমরা। এই বৈষম্য কোনোভাবেই মেনে নেব না। ২০১৮ সালের পরিপত্রটি পুনর্বহাল করেই এই আন্দোলন থামবে।

সংবাদটি লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার করুন