আজ রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
আজ রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

গণতান্ত্রিক চেতনায় জনগণ ভোটমুখী হবে, আশা সিইসির

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, উপজেলা নির্বাচনে ভোট পড়ার হার ৬০-৭০ শতাংশ হলে আমরা আরও সন্তুষ্ট হতাম। আশা করি, মানুষ আগামীতে আরও সচেতন হবে, গণতান্ত্রিক চেতনা উপলব্ধি করে ভোটমুখী হবেন।

পঞ্চম ধাপে উপজেলা নির্বাচন শেষে রোববার (০৯ জুন) নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের কাছে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার।
তিনি বলেন, চারটি ধাপে উপজেলা নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও ঘূর্ণিঝড় রিমালের কারণে আরেকটি ধাপ বেড়েছে। আজ পঞ্চম ধাপে ১৯টি উপজেলায় নির্বাচন হলো। দেশের ৪৯৫টি উপজেলার মধ্যে আজ পর্যন্ত ৪৬৯টিতে নির্বাচন সম্পন্ন করলাম। এবার প্রতিটি জেলায় তিনটি বা চারটি ধাপে হয়েছে। এজন্য প্রশাসনে কর্মকর্তাদের জন্য সহজ হয়েছে। স্বস্তিদায়কও হয়েছে।

সিইসি বলেন, ২৬টি উপজেলা নির্বাচন বাকি আছে। এর মধ্যে কয়েকটি এখনো মেয়াদপূর্তি হয়নি। কয়েকটি আদালতে নির্দেশনার কারণে স্থগিত রেখেছি। যথাসময়ে ওগুলো আমরা করব। তবে উপজেলা নির্বাচন মোটামুটি শেষ হয়েছে।

তিনি বলেন, রবিবার ১১৮০টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ২৩৫টি ভোটকেন্দ্রের হিসাব পেয়েছি। সেদিক থেকে ভোট পড়েছে ৪৩ দশমিক ৯১ শতাংশ। কাজেই নিশ্চিত করে বলা যাবে না কত ভোট পড়েছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, আজকে ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হযেছে। এর মধ্যে দুইজন পোলিং অফিসার নির্বাচনী অপকর্মে লিপ্ত ছিলেন। এই দিক থেকে আমরা কঠোর ছিলাম।

তিনি বলেন, নির্বাচনে মোট চারজন আহত হয়েছেন। দুজন গুরুতর। সেখানে মোটামুটি বলা যায়, কোপাকুপি হয়েছে। খুব যে গুরুতর ওরকম কিছু নয়। আজকে ভোটার ছিল ৩০ লাখ ৪৬ হাজার। ভোটের পরিবেশ শান্তিপূর্ণ ছিল।

উপজেলা নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হওয়ায় আপনারা সন্তুষ্ট কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, এটা সন্তুষ্টি, অসন্তুষ্টির বিষয় না। চট করে বলতে পারব না। আমরা হতাহতের খবর পাইনি। ভোটাররা ভোট দিতে পারেনি এমনটা হয়নি। সেদিক থেকে এটা ইতিবাচক। সেই দিক থেকে আমরা সন্তুষ্ট বোধ করছি। তবে ভোটার পড়ার সংখ্যা ৬০ শতাংশ, ৭০ শতাংশ যদি হতো তাহলে আপনাদের মতো আমরাও আরও সন্তুষ্ট হতাম। আশাকরি, মানুষ আগামীতে আরও সচেতন হবে এবং সুশাসনের বিষয় নিয়ে আমাদের জনগণকে উপলব্ধি করাতে হবে এবং তারা সুশাসনের যে গণতান্ত্রিক চেতনা তারাও হয়তো উপলব্ধি করে ভোটমুখী হবে।

গত ৮ মে থেকে পাঁচ ধাপে অনুষ্ঠিত হলো ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন।

সংবাদটি লাইক, কমেন্ট ও শেয়ার করুন